সর্বশেষ আপডেট



» আপনার সন্তানের হাতে স্মার্টফোন তুলে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন-বারইয়ারহাটে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশে বক্তরা

» হিঙ্গুলীর অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন রওশন-শফিক ফাউন্ডেশন

» ছাত্রদল নেতা আদিলের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ, দোয়া মাহফিল ও কবর জেয়ারত

» মাসব্যাপী অদম্য যুব সংঘের উদ্যোগে রক্তের গ্রুপ সনাক্তকরণ প্রশিক্ষণ শুরু

» করেরহাটে শুরু হতে যাচ্ছে মরহুম আবু ছালেক কোম্পানি চেয়ারম্যান মিনিবার ফুটবল টুর্নামেন্ট

» করেরহাটে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল

» হিঙ্গুলীতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে নব-নির্বাচিত বারইয়াহাট কলেজ ছাত্রলীগ নেতাদের সংবর্ধনা

» ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফকে সিএমএইচে স্থানান্তর, সুস্থ্যতা কামনায় মসজিদে মসজিদে দোয়া (ভিড়িওসহ)

» বারইয়ারহাটে দিনদুপুরে জুয়েলার্সের দোকানের তালা কেটে ৮০ ভরি স্বর্ণ চুরি (ভিড়িওসহ)

» চলতি মাসে চালু হচ্ছে ইসলামী ব্যাংক এজেন্ট ব্যাংকিং ঠাকুরদীঘি আউটলেটের

» চিনকিরহাটে থ্রী-ষ্টার এলপিজি ফিলিং ষ্টেশনের উদ্বোধন

» মিঠানালা ইউপি উপ-নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় এমএ কাশেম চেয়ারম্যান নির্বাচিত

» বারইয়ারহাটে সুপ্ত প্রতিভার কার্যালয় উদ্বোধন ও নতুন কমিটি ঘোষণা

» সিটিজি সংবাদের সেরা ফিচার সংবাদের জন্য সম্মাননা পেলেন সাংবাদিক আনোয়ার

» পাঠক হৃদয়ে জায়গা দখল করে নিয়েছে সিটিজি সংবাদ : প্রতিনিধি সভায় বক্তারা

» বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা চট্টগ্রাম উত্তর জেলার কমিটি গঠন

» হিঙ্গুলীতে ১০ দিন ধরে মাদ্রাসা ছাত্র নিখোঁজ

» কামরুল ইসলাম চৌধুরীর তত্বাবধানে ৩ টি স্পটে চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদানের উদ্যোগ

» একই নম্বর দিয়ে ৪টি ডিভাইস থেকে ব্যবহার করা যাবে WhatsApp, কিন্তু কিভাবে?

» দুর্বারের উদ্যোগে দিনব্যাপী দুইশ রোগীকে চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদান

সম্পাদক ও প্রকাশক

এম আনোয়ার হোসেন
মোবাইলঃ ০১৭৪১-৬০০০২০, ০১৮২০-০৭২৯২০।

সম্পাদকীয় কার্যালয়ঃ

প্রিন্সিপাল সাদেকুর রহমান ভবন (দ্বিতীয় তলা), কোর্ট রোড, মিরসরাই পৌরসভা, চট্টগ্রাম।
ই-মেইলঃ press.bd@gmail.com, newsmirsarai24@gmail.com

Desing & Developed BY GS Technology Ltd
৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং,১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মিরসরাইয়ের কৃতি সন্তান নিয়াজ মোর্শেদ সংগঠক থেকে উদ্যোক্তা

আসিফ সিদ্দিকী, চট্টগ্রাম ::::::  ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে যাত্রা শুরু নিয়াজ মোর্শেদ এলিটের। ঢাকা ব্রাদার্স ইউনিয়নের পরিচালক হিসেবে তিনি কাজ শুরু করেন মাত্র ২৫ বছর বয়সে। প্রায় একই সময়ে অর্থাৎ ২০০৭ সালেই তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট কমিটির ভাইস চেয়ারম্যানও নির্বাচিত হন। তখনকার ব্রাদার্স ইউনিয়নের পরিচালনা পর্ষদের এক সদস্য মিটিংয়ে আমাকে ‘অল্পবয়সী’ বলে তিরস্কার করেন। ক্রীড়া সংগঠকরাও বিষয়টি সহজভাবে মেনে নেননি। অথচ তিনি ছিলেন নির্বাচিত পরিচালক।
সেই তিরস্কার দারুণভাবে মনে দাগ কাটে নিয়াজ মোর্শেদ এলিটের। তখন থেকেই তরুণদের সক্ষমতা প্রমাণের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন তিনি। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সদ্য গ্র্যাজুয়েশন সমাপ্ত করা এলিটকে পেয়ে বসে জেদ, সক্ষমতা প্রমাণের লক্ষ্য নির্ধারিত হয় এবং শুরু হয় অভীষ্ট লক্ষ্যে ছুটে চলা।
এলিট বলেন, ‘আমার জীবনের সব অর্জনই কোনো না কোনো জেদ, বৈষম্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ কিংবা চ্যালেঞ্জকে কেন্দ্র করে হয়েছে। চ্যালেঞ্জের অংশ হিসেবে ২০০৭ সালেই চট্টগ্রাম ব্রাদার্স ইউনিয়নের পরিচালক এবং চট্টগ্রাম ক্রিকেট কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হই। ’
বর্তমানে তিনি সেই ব্রাদার্স ইউনিয়ন ঢাকার ভাইস প্রেসিডেন্ট, দাবা ফেডারেশনের প্রধান উপদেষ্টা। ক্রীড়া সংগঠনের সম্পৃক্ততার পাশাপাশি চলতে থাকে উদ্যোক্তা হিসেবে সফল হওয়ার চেষ্টা।
এলিট বলেন, ‘২০০৭ সালে যে চ্যালেঞ্জ আমি ছুড়ে দিয়েছিলাম সেটি প্রমাণ করতে আমাকে ২০১২ সাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে। ২০১২ সালে তরুণদের জন্য দেশের সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম জুনিয়র চেম্বার ইন্টারন্যাশনাল (জেসিআই) প্রতিষ্ঠা করি। এই প্ল্যাটফর্ম তৈরি ছিল আমার জীবনের একটি বড় স্বপ্নপূরণ। ’ তিনি বলেন, ‘তরুণদের দিয়ে বড় কিছু করা সম্ভব, তা প্রথমবার বাণিজ্য মেলা আয়োজনের মাধ্যমে আমরা প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি। জেসিআই হচ্ছে তরুণ প্রজন্মের আশার আলো, ইউনাইটেড ভয়েস বা সম্মিলিত শক্তি। ’
সংগঠক হিসেবে যাত্রা শুরুর আগে পারিবারিক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বড়তাকিয়া গ্রুপে ২০০১ সালে হাতেখড়ি হয় নিয়াজ মোর্শেদের। ২০ বছর বয়সী এলিট তখন ছিলেন গ্রুপের এক্সিকিউটিভ। বড়তাকিয়া গ্রুপ তখন দেশে থ্রি হুইলারের একচেটিয়া ব্যবসা করছে। চাকরির সেই ছোট অভিজ্ঞতার সুবাদে উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার প্রাণশক্তি পান তিনি। এর সঙ্গে যোগ হয় ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতা। দুই অভিজ্ঞতা ও তাঁর উদ্যমী ভাব দেখে বাবা মনিরুল ইসলাম ইউসুফ মাত্র ২৫ বছর বয়সেই ছেলেকে নিজের গড়া প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে বসাতে সামান্য কুণ্ঠাবোধ করেননি।
বাবার নির্বাচন যে সঠিক ছিল তিনি এরই মধ্যে তার প্রমাণ রাখতে সক্ষম হয়েছেন। বর্তমানে বড়তাকিয়া গ্রুপের কর্মপরিধি বহুগুণ বেড়েছে। প্রতিষ্ঠানে দেড় হাজার কর্মী সরাসরি কর্মরত আছে। বিনিয়োগ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩০০ কোটি টাকার মতো। আর প্রতিষ্ঠানের বার্ষিক টার্নওভার ৫০০ কোটি টাকা।
১৯৮৯ সালে টাটা ট্রাক বিক্রির ব্যবসা দিয়ে যাত্রা শুরু করলেও এর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকেননি নিয়াজ মোর্শেদ। ২০০০ সালে ভলভো-আইশার ট্রাক ডিস্ট্রিবিউটর, পিয়াজিও ব্র্যান্ডের টেম্পোর একচেটিয়া ব্যবসাও তাঁরা করেছেন। টুকটুক ব্র্যান্ডের সবুজ টেম্পো দেশে প্রথম তৈরি ও বাজারজাত করে ব্যাপক সাড়া পায় প্রতিষ্ঠানটি। এখন পিয়াজিও ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল দেশে সংযোজন শুরু করেছি আমরা। গাড়ি আমদানির মধ্যে সীমাবদ্ধ না থেকে এখন দেশে সংযোজন কারখানার দিকে মনোযোগ দিয়েছি আমরা। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘পাঁচ বছর পর পর ব্যবসার ট্রেন্ড বা ধরন পরিবর্তিত হয়। তাই সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ব্যবসার বহুমাত্রিকতা আনতে হয়। এ জন্য আমরা চীনের বিনিয়োগে বড় ধরনের সংযোজন কারখানা করছি। ’
ব্যবসা সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে বড়তাকিয়া গ্রুপ চট্টগ্রাম বন্দরে পণ্য ওঠানো-নামানোর কাজে যোগ দিয়েছে। বন্দরে জেটি মেরামত, যন্ত্রপাতি সরবরাহসহ অনেক কাজ বেশ দক্ষভাবে পরিচালনা করছে। এ ছাড়া সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে নির্মাণকাজও করছে ইদানীং।
এলিট বলেন, ‘গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংকটের কারণে চট্টগ্রামে গত ১০ বছরে বড় বিনিয়োগ হয়নি, পরিকল্পিত ও সমন্বিত অবকাঠামো উন্নয়নও হয়নি। বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার ঘিরে অনেক মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এর মধ্যে বিশেষ অথনৈতিক অঞ্চল, কর্ণফুলী টানেল, ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেললাইন, সীতাকুণ্ড থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত মেরিন ড্রাইভ এবং মাতারবাড়ীতে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র, এলএনজি টার্মিনাল নির্মাণের ফলে চট্টগ্রাম আগামী পাঁচ বছরেই মেগা সিটিতে পরিণত হবে। ’
এলিট বলেন, ‘এর ফলে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়বে, বিদেশিরা আসবে, টাকার হাতবদল হবে আর এতে শুধু চট্টগ্রাম নয় দেশের উন্নয়ন সাধিত হবে। এ জন্য সরকারের বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী চিন্তাকে অবশ্যই সম্মান জানাতে হবে। উন্নয়নের প্রশ্নে সবাইকে একমত হতে হবে। ’
আগামী পাঁচ বছরে চট্টগ্রামে সেবা খাতে বড় চাহিদা তৈরি হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এ জন্য আমাদের বিজনেস সম্প্রসারণটা সেবা খাত ও খাদ্যশিল্পে করার পরিকল্পনা নিয়েছি। বিদেশি বিখ্যাত ব্র্যান্ডের ফুডশপ, ফাস্টফুড আউটলেটগুলোর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আশা করছি, শিগগিরই সুখবর দিতে পারব। ভৌগোলিক অবস্থানগত কারণে চট্টগ্রাম সার্ক ও আসিয়ানের মধ্যবর্তী একটি অঞ্চলে অবস্থান হলেও সেটিকে আমরা এতদিন কাজে লাগাতে পারিনি। এ কারণে চট্টগ্রামের একমাত্র পাঁচতারা হোটেল র‍্যাডিসন ব্লুতে অকুপেন্সি ২৫ শতাংশ। এখন অর্থনীতির যে গতিশীলতা এসেছে তাতে সেই অবস্থা আর থাকবে না। ’
চট্টগ্রামে আগে সড়ক বাড়লে বিমানবন্দর সুবিধা বাড়েনি, চট্টগ্রাম বন্দরের সুবিধা বাড়লে তা সামাল দেওয়ার অবকাঠামো তৈরি হয়নি। এখন সড়ক, রেল, বিমান ও সমুদ্রবন্দর সুবিধায় সমন্বিতভাবে সব কিছু তৈরি হচ্ছে। ফলে চট্টগ্রামকে সেগুলো সামাল দেওয়ার দক্ষ জনবল তৈরি করতে হবে।
চট্টগ্রামকে বাণিজ্যিক রাজধানী বলা হলেও সরকারি-বেসরকারি প্রধান অফিসগুলো ঢাকাকেন্দ্রিক, যেকোনো কিছুর জন্য ঢাকায় দৌড়াতে হচ্ছে। সেটা ছেলের স্কুল বলেন, আর ব্যবসার উদ্যোগ বলেন। এই নীতি পাল্টাতে হবে। চট্টগ্রামে প্রচুর তরুণ ব্যতিক্রমী আইডিয়া দিয়ে সক্ষমতার প্রমাণ রাখছে কিন্তু আনুষঙ্গিক সুবিধা না থাকায় তারাও ঢাকামুখী হচ্ছে।
এ থেকে উত্তরণের উপায় হিসেবে জেসিআই বাংলাদেশের নির্বাহী সহসভাপতি নিয়াজ মোর্শেদ বলেন, একটি সমন্বিত পরিকল্পনা করে ১৮ থেকে ৪০ বয়সী তরুণদের নীতিমালা তৈরি করা, স্টার্টআপ বা শুরুর ব্যবসা সহজ শর্তে অর্থাৎ এক অঙ্ক সুদে ঋণ দেওয়া এবং নারী উদ্যোক্তাদের মতো বড় তহবিল গঠন করে তরুণদের উদ্যোক্তা হিসেবে তৈরির সুযোগ দিয়ে তাদের অর্থনীতির মূল স্রোতে নেওয়াটাই হচ্ছে সমাধান। এতে প্রত্যেক উদ্যোক্তা নিজ এলাকায় ব্যবসা সম্প্রসারণ করবে, চাকরি দেবে, সেই এলাকার চিত্র পাল্টে যাবে।
তিনি দৈনিক কালের কণ্ঠ’র পাঠক সংগঠন শুভ সংঘের প্রধান উপদেষ্টা হিসেবেও সুনামের সঙ্গে কাজ করছেন। সুচিন্তা বাংলাদেশ, চট্টগ্রাম বিভাগের যুগ্ম সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করে একজন দক্ষ সংগঠক হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছেন। সূত্র-দৈনিক কালের কণ্ঠ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



সম্পাদক ও প্রকাশক

এম আনোয়ার হোসেন
মোবাইলঃ ০১৭৪১-৬০০০২০, ০১৮২০-০৭২৯২০।

সম্পাদকীয় কার্যালয়ঃ

প্রিন্সিপাল সাদেকুর রহমান ভবন (দ্বিতীয় তলা), কোর্ট রোড, মিরসরাই পৌরসভা, চট্টগ্রাম।
ই-মেইলঃ press.bd@gmail.com, newsmirsarai24@gmail.com

Design & Developed BY GS Technology Ltd